রংপুর জিলা এসোসিয়েশন’র নবনির্বাচিত কমিটির অভিষিক্ত

নিউইয়র্ক: রংপুর জিলা এসোসিয়েশন ইনক’র নবগঠিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান গত ২৮ ডিসেম্বর শনিবার অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে রংপুর জিলা এসোসিয়েশন-এর সদস্যবৃন্দ এবং নিউইয়র্কে বসবাসরত রংপুরবাসী উপস্থিত ছিলেন। এরপর প্রধান উপদেষ্টা মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান লাবু, অ্যাডভোকেট একরামুল ইসলাম, ইদ্রিসুর রহমান, শফিকুল ইসলাম বসুনিয়া, বিদায়ী সভাপতি নাফিসুর রহমান পিপুল এবং রংপুরের বড়ভাই খ্যাত শামীম চৌধুরীর উপস্থিতিতে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন শফিকুল হক বসুনিয়া। এরপর শপথ পাঠ করান প্রধান উপদেষ্টা মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান লাবু। শপথ নেন সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, সহ সভাপতি মোঃ মিয়া দুলু, সাধারণ সম্পাদক জাকিউল উদ্দিন উৎপল, সহ অর্থ সম্পাদক তপন চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক পপি চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য নাফিসুর রহমান পিপুল, রাজু আহমেদ জাদু এবং মোহাম্মদ মাসুদ আলম মিঠু। শপথ পাঠের পর ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয় নতুন কমিটিকে।
প্রধান উপদেষ্টা মোঃ মেস্তফিজুর রহমান লাবু বলেন, “সংগঠনের দুই-একজন ব্যক্তি সবসময় হট্টগোল সৃষ্টি করে বা করতে চেষ্টা করে, আমরা সবাই সচেতন থাকলে কেউ বিশৃঙ্খলা করার সাহস পাবে না। আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে রংপুর জেলা এসোসিয়েশন ইন্ক এর আদর্শের উপর দাঁড়িয়ে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হবে সংগঠনটিকে।”
বিদায়ী সভাপতি নাফিসুর রহমান বলেন, “যে বন্ধুরা বিশৃংখলভাবে সংগঠনের বাইরে চলে গেছেন তাদেরকে আবার ফিরে আসার আহ্বান জানাচ্ছি এবং নতুন কমিটিকে সাথে নিয়ে নতুন উদ্যমে এগিয়ে চলার জন্য একাত্মতা ঘোষণা করছি।”
মোঃ শামীম চৌধুরী প্রবাসের এত রংপুরবাসীকে একসাথে দেখে তাঁর অভিভূত অনুভূতি প্রকাশ করেন এবং বিশৃঙ্খলা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট একরামুল ইসলাম তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, “সবাই মিলে এক সাথে কাজ করে রংপুর জিলা এসোসিয়েশনকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে।”
নব নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক জাকিউল উদ্দিন উৎপল বলেন, “আসুন সবাই মিলে এখন ক্ষেতে ফসল ফলাই, দুই বছর পরে সেই ফসল আপনারা ঘরে তুলবেন।” এরপর তিনি সকলকে শুভেচ্ছা জানান এবং সকলের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।
নবনির্বাচিত সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর আলম তার শুভেচ্ছা বক্তব্যে সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সকলকে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়ে বলেন, “কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় সভাপতি হিসেবে আমি নির্বাচিত হয়েছি, কিন্তু তাতে কারো কোন প্রকার দ্বিধাদ্বন্দ্ব থাকলে প্রকৃত সমস্যা সমাধানের জন্য পথ খোলা রয়েছে। যদি সভাপতির পদ থেকে আমি সরে গেলে কোন সমস্যার সমাধান হয় তাতেও কোন প্রকার দ্বিমত থাকবে না আমার, কিন্তু প্রকৃত সমস্যা অনুসন্ধান করা একান্ত জরুরি। কোন ভাই যদি অনিয়মকে নিয়মে পরিণত করতে চান সেটা সম্পূর্ণ সংবিধান বহির্ভূত। রংপুর জিলা এসোসিয়েশন সংবিধানে বিশ্বাসী, সংবিধান বহির্ভূত কোন কাজ রংপুর জিলা এসোসিশন মেনে নিবে না। শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য সাংবিধানিক সকল প্রকার আইনি বিষয় নিয়ে আলোচনা করে ব্যবস্থা নিতে হবে, তা না’হলে ভবিষ্যতে বিশৃঙ্খলা আরো বেশি হবে। তবে সকলে যদি উপলব্ধি করেন যে ভবিষ্যতে আর কোন বিশৃঙ্খলা করবেন না, সে ক্ষেত্রে ক্ষমাপ্রার্থনা করলে সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা যেতে পারে।” এরপর তিনি নির্বাচন কমিশনকে কোন প্রকার দোষারোপ দেয়া থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান। কারণ রংপুর জিলা এসোসিয়েশন নির্বাচন কমিশনকে দায়িত্ব দিয়েছিল নির্বাচনের সকল কার্যক্রম সংবিধানের আলোকে সম্পন্ন করার জন্য। এরপর নবনির্বাচিত সভাপতি সকলের শান্তি ও মঙ্গল কামনা করে দোয়া প্রার্থনা করেন।
সহ সভাপতি মোঃ মিয়া দুলু শান্তির পথে আসার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।
প্রাক্তন সভাপতি মোঃ রাজু আহমেদ শান্তি প্রতিষ্ঠায় সক্রিয় ভূমিকা রাখবেন বলে সকলকে জানান। ডিনার পরিবেশনের পর বিদায়ী সভাপতি তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে রংপুর জিলা এসোসিয়েশনের উন্নতি কামনা করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। -প্রেস বিজ্ঞপ্তি।






একই ধরনের খবর

  • বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিলের নতুন কমিটি ঘোষণা
  • ভবিষ্যতে কংগ্রেসে নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশীরা : চাক শুমার
  • ফ্রেন্ডস সোসাইটি নতুন পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা : আগামী দিনে নতুন কিছু উপহার দেয়ার প্রতিশ্রæতি
  • বিশ্বব্যাপী গণহত্যার বিচার দাবী
  • নিউইয়র্কে বাংলাদেশী সুপার মার্কেট সহ ৫টি বাড়ীতে অগ্নিকান্ড ॥ আহত ১৫
  • ওজনপার্কে আগুন : ৪টি বসতবাড়ীসহ সুপার মার্কেট ক্ষতিগ্রস্ত
  • জ্যামাইকা বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটির সভা অনুষ্ঠিত
  • Shares