যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কমিটি কতদূর ?

বিশেষ প্রতিনিধি: প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা নিউইয়র্ক সফরে আসছেন। জাতিসংঘের ৭৩তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দিতে ২৩ সেপ্টেম্বর তিনি নিউইয়র্ক এসে পৌঁছবেন। ওই দিনই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া হবে গণসংবর্ধনা। ম্যানহাটনের ৬ এভিনিউতে অবস্থিত হিলটন হোটেলের গ্র্যান্ড বলরুমে আয়োজন করা হচ্ছে এই সংবর্ধনা। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে কমিউনিটির সবখানে নানা আলোচনা চলছে। দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝেও নানা দাবী উঠছে। দীর্ঘদিন কমিটি না থাকার কারণে এবং গত বছর প্রায় ঘোষিত হতে চলা কমিটি কি এবার হবে এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে সবখানে।
প্রধানমন্ত্রীর নিউইয়র্ক সফরের সময় অতীতের মত জেএফকে বিমানবন্দর ও ভাষণ দেয়ার সময় জাতিসংঘের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শনের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি।
নানা সূত্র বলছে, ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘে ভাষণ দিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে এটি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। ২৮ সেপ্টেম্বর লন্ডনের উদ্দেশ্যে তিনি নিউইয়র্ক ত্যাগ করতে পারেন। এর আগে জাতিসংঘে বিভিন্ন সরকার প্রধানের সাথে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের প্রস্তুতি নিচ্ছে জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশন।
এবারের বৈঠকের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে শেখ হাসিনার বৈঠক। পর্যবেক্ষক মহল এই বৈঠককে তাৎপর্যময় বলে বর্ণনা করেছেন।
জাতিংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশণ শুরু হবে ১৮ সেপ্টেম্বর। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ২৩ সেপ্টেম্বরের সংর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ নিয়ে তার ভিশনের কথা তুলে ধরবেন।
এয়ারপোর্টে অভ্যর্থনার প্রস্তুতি সম্পর্কে ড. সিদ্দিক বলেন, প্রতিবারের মতই আমরা উষ্ণ সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিষিক্ত করবো। এজন্য যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের ওই দিন সকাল ৭টা থেকে এয়ারপোর্টে আসতে আমি আহ্বান জানাচ্ছি।
ড. সিদ্দিক বলেন, ২৭ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে ভাষণ দিতে পারেন। সেখানে অন্যান্য বছরের মতই আমরা সংহতি এবং শান্তি সমাবেশ করবো। এতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সহ সকল অঙ্গ সংগঠন এবং প্রবাসীরা যোগ দেবেন।
ড. সিদ্দিক বলেন, প্রতি বছরই আমরা কোন না কোনভাবেই চমক রাখি। এবছরের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের চমক থাকবে। তবে এটা এই মুহুর্তে বলা হবে না। চমক দেখানো হবে সংর্ধনা অনুষ্ঠানে।
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমনকে কেন্দ্র করে দলের কমিটি নিয়ে বিতর্ক বেশ জোরালো হয়ে উঠেছে। অনেকেই জানতে চাচ্ছেন নতুন কমিটি হবে কিনা। পরিবর্তন আসবে কিনা দলের নেতৃত্বে। লবিং পাল্টা লবিংয়ের খবরও আসছে বিভিন্ন মহল থেকে।
একটি সূত্রের মতে, কমিটি বদল হবে কিনা এটা এখনো নিশ্চিত নয়। তবে সাধারণ সম্পাদক পদকে ভারমুক্ত করা হতে পারে। এ ক্ষেত্রে বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ হতে পারেন ভারমুক্ত। অথবা নিয়োগ পেতে পারেন নতুন কোন সাধারণ সম্পাদক।
সাধারণ সম্পাদক পদে অনেকেই আগ্রহী। এক্ষেত্রে বর্তমান যুগ্ম সম্পাদক আইরীন পারভীন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ ও আব্দুর রহিম বাদশা ছাড়াও কাজী কয়েস, হাজী এনাম, মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, হিন্দাল কাদির বাপ্পাসহ আরো অনেকেরই নাম শুনা যাচ্ছে।
এদিকে সম্মেলনের দাবিতে যুক্তরাষ্ট্র আওয়া লীগের নেতা-কর্মীরা রাজপথে নেমেছেন। ২ সেপ্টেম্বর জ্যাকসন হাইটসের ডাইভার্সিটি প্লাজায় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে সমাবেশ করেছেন দলের নেতাকর্মীরা। তারা সাত বছরের পুরোনো কমিটি বাতিল করার দাবি জানিয়েছেন। নানা রঙের পোস্টার-ব্যানার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ এবং আওয়ামী পরিবারের ব্যানারে শোভাযাত্রা-সমাবেশ হয়েছে।
হতাশ ও ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা মনে করেন, বাংলাদেশের আগামী জাতীয় নির্বাচনে আমেরিকা প্রবাসীরা দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবেন। এ জন্য সম্মেলন হওয়া জরুরি।
শেখ হাসিনাকে বিশ্বনেত্রী উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী ও দলকে বিভ্রান্ত করে যারা ফায়দা হাসিল করে আসছে, তাদের প্রতিহত করতে হবে।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আব্দুস শহীদ দুদু। সভা পরিচালনা করেন কাজী কয়েস আহমেদ। বক্তব্য দেন প্রদীপ কর, তোফায়েল চৌধুরী, হাকিকুল ইসলাম, আব্দুর রহিম বাদশাহ, চন্দন দত্ত, শাহ বখতিয়ার, সাজু আহমেদ, আবুল কাশেম, নূরুউদ্দিন মাসুদ মোল্লা, হেলাল মাহমুদ, আশরাফ উদ্দিন, জালাল উদ্দিন জলিল, কায়কোবাদ খান, শরীফ কামরুল হীরা, গোলাম রব্বানী, আসুক মাশুক, ইলিয়ার রহমান, রেজাউল করিম, ওয়ালী হুসেন, শিমুল হাসান, সেবুল আহমদ, জেসমিন বোখারি, রুমানা আক্তার, দুরুদ মিয়া রুনেল, নাসিফ তোরন প্রমুুখ। (সাপ্তাহিক আজকাল)






একই ধরনের খবর

  • বাংলাদেশী নাজমা খানম হত্যা মামলার রায়ে ঘাতক মার্টিনের ৪০ বছরের কারাদন্ড
  • প্রথমবারের মতো ভারপ্রাপ্ত সা. সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান
  • নিউইয়র্কে বিস্তারিত কর্মসূচী গ্রহণ
  • আলহাজ মির্জা ফরহাদের ইন্তেকাল
  • দেলোয়ার সভাপতি ইয়াকুব সম্পাদক
  • ড. মোমেন ও শাহীনের সমর্থন সভা : ড. মিলনের সমর্থকরা হতাশ
  • নাসাউ কলিসিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ফোবানাই আসল ফোবানা
  • ফোবানা’র ‘ট্রেড মার্ক’ কারো ব্যক্তিগত সম্পত্তি নয়
  • Shares