যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসীদের গুলিতে বাংলাদেশী নিহত

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশী অধ্যুষিত মিশিগান অঙ্গরাজ্যের ডেট্রয়ট সিটিতে জয়নুল ইসলাম (৪৮) নামে এক বাংলাদেশী সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৪ মে) রাতে তারাবির নামাজ পড়ে ট্যাক্সি ক্যাব নিয়ে বের হবার পর রাত আনুমানিক ১.৩০ থেকে ৩টার মধ্যে তিনি সন্ত্রাসী হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। রাত সাড়ে ১২টার দিকে ডেট্রয়েট শহরের মিড টাউনের নিকটবর্তী স্থানে এঘটনা সংঘটিত হয় বলে মিশিগানন থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে। এই ঘটনায় স্থানীয় বাংলাদেশী কমিউনিটিতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। খবর ইউএনএ’র।

জানা গেছে, নিহত জয়নুল ইসলাম ডেট্রয়টের অধিবাসী এবং কাশ্মীর ষ্ট্রীটে স্ত্রী ও সন্তানসহ বসবাস করতেন। তিনি পেশায় একজন ট্যাক্সিচালক ছিলেন। তিনি রাতের শিফটে চেকার ক্যাব চালাতেন। তার বাড়ী সিলেটের বড়লেখা থানার বর্ণি ইউনিয়নের কাজীবন্ধ গ্রামে। তিনি ৭ সন্তানের জনক। প্রতিদিনের মত রাতে তারাবির নামাজ শেষে ট্যাক্সি নিয়ে তিনি কাজে বের হয়ে হত্যার শিকার হন। তবে কেন কি কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা জানা যায়নি। ঘটনার সময় হঠাৎ গুলির শব্দে প্রতিবেশীরা পুলিশে কল দেয় এবং পুলিশ এসে রাস্তায় পড়ে থাকা মৃত দেহ উদ্ধার করে। ডেট্রয়েট পুলিশ এই হত্যা ঘটনার তদন্ত করছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।
এদিকে নিহত মোহাম্মদ মইনুল ইসলামের জানাজা রোববার (২৬ মে) যোহর বাদে ডেট্রয়েটের মসজিদ উন নূর-এ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ডেট্রয়েটে বাংলাদেশী কমিউনিটির অধিবাসী সহ সর্বস্তরের মানুষ অংশগ্রহণ করেন।
উল্লেখ্য, জয়নুল ইসলাম ডিভি লটারী ভিসায় পরিবার নিয়ে প্রায় ১৫ বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিলেন। বড় মেয়ের বিয়ে দেয় উপলক্ষ্যে আগামী ২০ জুন তার পরিবারের বাংলাদেশে যাওয়ার কথা ছিলো। তার অন্য সন্তানদের বেশীর ভাগই অপ্রাপ্ত বয়স্ক।






একই ধরনের খবর

  • নিউজার্সীতে জমকালো অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালন
  • যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির কমিটি গঠনের দায়িত্ব পেলেন খোকন
  • ফ্লোরিডায় ২৭তম এশিয়ান খাদ্য মেলা ও সাংস্কৃতিক শোর ব্যাপক প্রস্তুতি
  • শিক্ষা খাতে অবদান রাখায় সিলেটে প্রবাসী সংবর্ধিত
  • আরব সাগরে নিখোঁজ বাংলাদেশী যুবকের লাশ উদ্ধার
  • যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৩১ বাংলাদেশীকে ফেরত
  • সিআইপি’র স্বীকৃতি পেলেন নিহাল রহিম
  • সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দাবিতে ক্যাপিটেল হিলের সামনে বিক্ষোভ
  • Shares