পহেলা মে ফ্লোরিডায় লকডাউন খুলে দেয়া হচ্ছে : মায়ামী পার্ক ব্যবহারে থাকবে সাবধানতা

এমদাদ চৌধুরী দীপু: বুধবার (পহেলা মে) খুলে দেয়া হচ্ছে ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের লকডাউন। এ ব্যাপারে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প-এর সাথে কথা হয়েছে ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের গভর্নর রন ডি সেন্টিস’র। তিনি ওয়াশিংটনে প্রেসিডেন্টের সাথে তার কার্যালয়ে দেখা করেন। এসময় একে অন্যকে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। এদিকে অঙ্গরাজ্যের আকর্ষন মায়ামী কাউন্টির মিয়ামিডেড পার্কও খুলে দেয়া হচ্ছে। সব প্রস্ততি শেষ হয়েছে উদ্যান, মেরিনাস এবং গল্ফমাঠ সহ বিভিন্ন লোকেশন-র। রিপাবলিকান সমর্থিত গভর্নর গত সপ্তাহ থেকে তার রাজ্য লকডাউন মুক্ত করার প্রস্তুতি শুরু করেছেন বলে জানিয়েছে সিএনএন।
মঙ্গলবার, কাউন্টি শ্রমিকরা পার্কে বাথরুম এবং ঝর্ণা স্যানিটাইজ করেছেন এবং সামাজিক দূরত্ব প্রয়োগ করার জন্য ৪০০ জন লোককে নিয়োগ দেয়া হয়েছে, তাদেরকে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে করোনা সাবধানতার ব্যাপারে। মায়ামী পার্ক উদ্বোধনের ব্যাপারে আটলান্টার মেয়র প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছেন ইতিমধ্যে। মায়ামী কাউন্টিতে সনাক্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৫শ ৭০জন করোনা রোগী, সুস্থ হয়েছেন ১২৮৬ জন, মারা গেছেন ৩০২ জন।
পার্ক ব্যবহারকারীদের জন্য নির্দেশনা তৈরী করা হয়েছে। আগের মত উম্মুক্ত সুবিধার পরিবর্তে নিয়ন্ত্রিত ব্যবস্থাপনা থাকবে বলে জানিয়েছে গভর্নর অফিস এবং মেয়র অফিসের সাথে ঘনিষ্ট একাধিক সূত্র। এছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্টের খেলোয়াড়দের অনুশীলনেও সীমাবদ্বতা থাকবে।
অপরদিকে, ফ্লোরিডার গভর্নর রন ডিসান্টিস মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে হোয়াইট হাউসের বৈঠকে বলেছেন যে তিনি বুধবার রাজ্যের লকডাউন খোলার পরিকল্পনা ঘোষণা করবেন। যুক্তরাষ্ট্রের অঙ্গরাজ্য ফ্লোরিডায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১১৭১জন। এদিকে সনাক্ত হয়েছেন প্রায় ৩৩ হাজার। সুস্থ হয়েছেন ৫হাজারের বেশী রোগী।আজ নিউইয়র্ক সময় রাত ১২টা ৩০ মিনিটে এবং ২৯ এপ্রিল করোনা থেকে মুক্তি পেয়েছেন ২০ হাজারের উপরে মানুষ। একদিনে শনাক্ত হওয়ার সংখ্যা প্রায় ২৬ হাজার। একদিনে সুস্থ হওয়া এবং শনাক্ত হওয়ার মধ্যে আবার বিরাট ফারাক । মৃত্যু আবার বেড়েছে গত ২৪ ঘন্টায় ২৪,৭০০ জন। নিউইয়র্কে একদিনে মারা গেছেন ৫২১ জন। যুক্তরাষ্ট্রের সামগ্রিক করোনা পরিস্থিতির আবার অবনতি হয়েছে। এসব তথ্য বৈশ্বিক তথ্যবাতায়ন ওয়ার্ল্ডোমেটার থেকে পাওয়া গেছে। এই ওয়েবপেইজে ক্যালিফোর্নিয়ায় নতুন করে ৬ জনের মারা যাওয়ার তথ্য দেয়া হয়েছে।
১০ লাখ ৩৫ হাজারের উপরে করোনা ভাইরাস বা কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যসহ কিছু বড় শহর, কেন্দ্রীয় কারাগার, রণতরী, আইল্যান্ডগুলোতে। এর বিপরীতে প্রায় এক লাখ ৪২ হাজার মানুষের সুস্থতায় স্বস্থিকর পরিবেশ মুক্তিকামী উত্তর আমেরিকাবাসীর মাঝে। গত এক সপ্তাহে সুস্থ হয়েছেন ৭০ হাজার এর উপরে মানুষ। আরো স্বস্থির খবর মৃত্যুর সংখ্যা বিস্ময়করভাবে নেমে এসেছে। অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্ক নিয়ে যে উদ্বেগ ছিল সেটি কমে এসেছে ক্রমাগত উন্নতির ফলে। এক সপ্তাহ আগে একদিনে শনাক্ত হতো ১০ হাজারের উপরে আর এখন চার হাজার। যুক্তরাষ্ট্রে এখন মৃত্যুর সংখ্যা ৫৯,২৬৬ জন। নিউইয়র্কে মোট মৃত্যু ২৩,১৪৪ জন।
শীর্ষ রাজ্যগুলোর চিত্র হচ্ছে- নিউজার্সীতে সনাক্ত এক লাখ ১৪ হাজার এর উপরে, মৃত্যু ৬৪৪২ জন, সুস্থ মাত্র ১৫শ। ম্যাসাচুয়েসট অঙ্গরাজ্য যেখানে সনাক্ত রোগী প্রায় ৫৮ হাজার, মারা গেছেন ৩১৫৩ জন। মিশিগানে মারা গেছেন ৩,৫৬৭ জন। এ যাবত শনাক্ত ৩৯ হাজারের উপরে, এই রাজ্যে সুস্থতা নিয়ে রয়েছে উদ্বগ আর উৎকন্ঠা।
উল্লেখ্য, বিভিন্ন সূত্রের তথ্যমতে যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ করোনার কারণে এ পর্যন্ত স্বপ্নের দেশে দু’ শতাধিক বাংলাদেশীর মৃত্যু হয়েছে।






একই ধরনের খবর

  • জর্জ ফ্লয়েড হত্যা : উত্তাল যুক্তরাষ্ট্রে ২০ হাজার ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন
  • বিশ্বের ইতিহাসে ভিন্নধর্মী ঈদুল ফিতর পালিত : করোনা মুক্ত বিশ্ব কামনা : করোনাকালের লক ডাউনে নিউইয়র্কের ঘরে ঘরে ঈদের জামাত
  • চাঁদ দেখা যায়নি : যুক্তরাষ্ট্রে রোববার ঈদ বাংলাদেশে সোমবার
  • করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি লাখে মৃত্যু ২৮.৮জন
  • যুক্তরাষ্ট্রে দুই কোটি ৫৭ লাখ বেকার : শ্রম বিভাগে আবেদন জমা পড়া অব্যাহত
  • করোনা : যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে ২,৭৩৮ জনের মৃত্যু
  • পেনসেলভেনিয়ায় ব্যবসায়ীদের শাটডাউন স্থগিতের আবেদন খারিজ
  • ৫ হাজার থেকে মৃত্যু ৬৪ হাজারে, সনাক্ত ২ লাখ থেকে ১১ লাখ, টেস্ট সম্পন্ন হলো ৬৪ লাখ মানুষের
  • Shares