লক্ষাধিক দর্শকের কাছে নিয়ে যাবে টাইম টেলিভিশন

বিপিএল ক্রিকেট আসরের উদ্বোধন ২৯ সেপ্টেম্বর

বিশেষ প্রতিনিধি: আগামী অক্টোবরে দ্বিতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উৎসব গ্রুপ প্রেজেন্ট বিপিএল-২০১৯। পাওয়ার্ড স্পন্সর এটর্নি র‌্যান্ডি বি. সিগেল এবং মিডিয়া পার্টনার টাইম টেলিভিশন ও বাংলা পত্রিকা। এবারের বিপিএল ক্রিকেট আসর উপলক্ষ্যে গত ১৪ সেপ্টেম্বর শনিবার কুইন্সের জ্যামাইকায় পানসী রেষ্টুরেন্টে বিপিএল-এর মিট দ্যা প্রেস এবং প্লেয়ার ড্রাফট অনুষ্ঠিত হয়। মিট দ্যা প্রেসে উপস্থিত ছিলেন উৎসব গ্রুপ-এর সিইও রায়হান জামান, বাংলা পত্রিকার সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশন-এর সিইও আবু তাহের, বিপিএল-এর সভাপতি সুমন খান, সিনিয়র সহ-সভাপতি তানভীর চৌধুরী (বাবু), সাধারণ সম্পাদক তানভীর ভূইয়াঁন, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আল আমিন রাসেল এবং প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার সাজিদ হাসান। বিপিএল-এর কোষাধ্যক্ষ ধ্রীতিমান চৌধুরী (অমিত)-এর সঞ্চলনায় সংশ্লিষ্টরা মিট দ্যা প্রেসে বিপিএল এর সাফল্য কামনা করে বক্তব্য রাখেন।
স্বাগত বক্তব্যে সুমন খান গত বছরের মতো এবারো বিপিএল-এর পাশে থাকার জন্য উৎসব গ্রুপ, টাইম টেলিভিশন এবং বাংলা পত্রিকাকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, বিপিএল-এর উদ্দেশ্য বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের পরবর্তী পর্যায়ে উন্নীত করা, যেখানে ক্রিকেটারদের খেলার মানগত পরিবর্তন করা সম্ভব। তিনি আরো বলেন, টাইম টেলিভিশন ফাইনাল, সেমি ফাইনাল, কোয়াটার ফাইনাল এবং গ্রুপ পর্ব থেকে মোট ৫টি খেলা সরাসরি সম্প্রসার করবে।
রায়হান জামান বিপিএল-এর প্রতিটি দলের স্বত্বাধিকারীদের এবং খেলোয়াড়দের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন আপনাদের ছাড়া বিপিএল করা সম্ভব নয়। তিনি বলেন, গত বছরের ন্যায় এবারেও আরো বেশী দর্শক থাকবে এবং ভবিষ্যতে খেলাধুলার উন্নয়নে বিপিএলের পাশে উৎসব গ্রুপ থাকবে, সেই আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, টুর্নামেন্ট শেষে বিপিএল নাইটে ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান-কে নিয়ে আমরা উৎসব করতে চাই।
আবু তাহের বলেন, গত বছরে খেলাধুলায় নিউইর্য়কের বাংলাদেশী কমিউনিটিতে বিপিএল-এর খেলোয়াড়দের অংশগ্রহনে টাইম টিভি যে কাজটি করেছে তা বহি:বিশ্বে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। এই ইতিহাস সৃষ্টির নেপথ্যে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালনের জন্য তিনি উৎসব গ্রুপ-এর সিইও রায়হান জামানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এবার আমাদের টার্গেট দেশ-বিদেশের লক্ষাধিক দর্শক। টাইম টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারের মাধ্যমে আমরা এই টার্গেটে পৌছাতে চাই। তিনি এই টুর্নামেন্টের সাথে সম্পৃক্ত সকলকে ফেজবুক, টুইটার প্রভৃতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপিএল টুর্নামেন্টকে আলো ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানান।
আল আমিন রাসেল প্রত্যেক দলকে স্যোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিপিএলের খবর সবার মাঝে ছড়িয়ে দেবার জন্য আহবান জানান।
সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে সভাপতি সুমন খান জানান, আগামীতে আগষ্ট মাসে যেন খেলা শুরু করা যায় সেই চেষ্টা করবেন, আরো জানান এবারের বিপিএল এর প্রাইজমানি হিসাবে চ্যাম্পিয়ন দল পাবে দশ হাজার ডলার, রানার্স আপ দল পাবে সাড়ে তিন হাজার ডলার। এছাড়াও প্রতি খেলায় ম্যান অফ দি ম্যাচ ও ভালো খেলোয়াড়দেরকে পুরস্কৃত করা হবে।
মিট দ্য প্রেসে বিপিএল-এ অংশগ্রহণকারী দলের স্বত্বাধিকারী এবং খেলোয়াড়রা ছাড়াও বিসিএল অফ ইউএসএ-এর প্রেসিডেন্ট আরিফুল ভূইয়ান জিয়া, বিপিএলের পরিচালক প্রনয় শুভ্র দাস, রাহী আহমেদ, মনি খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মিট দ্যা প্রেস শেষে প্লেয়ার ড্রাফট পর্বে জানানো হয়- সর্বমোট ১২টি দল, ৪টি গ্রুপ এবং প্রতিটি টিম ডাবল রবীন লীগ ভিত্তিতে গ্রুপ পর্যায়ে মোট ৪টি ম্যাচ খেলবে। প্রতিটি গ্রুপ থেকে থেকে ২টি টিম নক আউট পর্বে উন্নীত হবে। সর্বমোট খেলা হবে ৩১টি এবং খেলার জন্য সর্বমোট ৫টি মাঠ ব্যবহার করা হবে। মাঠগুলো হচ্ছে- আইডেল ওয়াইল্ড ক্রিকেট ফিল্ড, বেইজলি ১,৩,৪, এবং ড. ড্রু। আগামী সেপ্টম্বরের ২৯ তারিখে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ড. ড্রু মাঠে অনুষ্ঠিত হবে। অক্টোবরের ৫,৬ ও ১২ তারিখে গ্রুপ পর্যায়ের খেলা, কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমি ফাইনাল এবং অক্টোবরের ১৩ তারিখে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে।
এদিকে বিপিএল-এর প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে: প্লেয়ার ড্রাফটের মাধ্যমে প্রতিটি দল ‘এ’ ক্যাটাগরিতে ৫ জন এবং ‘বি’ ক্যাটাগরিতে ৩ জন করে খেলোয়াড় দলে নিয়েছেন। ইতিমধ্যে প্রি ড্রাফটের মাধ্যমে প্রতিটি দল ১জন আইকন, ২জন হোম টাউন, ২জন ওপেন চয়েজে এবং ৩জন বিদেশী খেলোয়াড় দলে নিয়ে নিয়েছেন। প্রতিটি দলে সর্বমোট ১৬জন করে খেলোয়াড় থাকবে।
আসন্ন বিপিএল-এ মোট ১২টি দল অংশগ্রহন করবে। স্বত্বাধিকারী ও অংশগ্রহনকারী দলগুলো হচ্ছে- ঢাকা ভাইপারস (সাদি আলম, রনি চৌধুরী, নিশাদ হক), ঢাকা গ্লাডিয়েটরস (মারজান আলম, মাহবুব রেজা চৌধুরী), মুন্সিগঞ্জ উইজার্ড (মো: বায়জিদ হোসেন), বিক্রমপুর কিংস এলেভেন (আরিফুল ভুঁইয়ান, আফরাহ খানম), বরিশাল রয়েলস (ফয়সাল আহমেদ, আমিনুব রহমান), দিনাজপুর ডায়নামিক (এহমানুল ইসলাম, মো: কবির, মো: মোতালেব), খুলনা এ্যাভেনজার্স (ফয়েজ চৌধুরী, বাকির আহমেদ, আজাদ আহমেদ), কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস (মেহেদি হাসান সোহাগ), নোয়াখালী লিজেন্ড (মো: উল্লাহ রনি), নোয়াখালী নেমেসিস (মো: জাহিদুল ইসলাম), সিলেট সুপার কিংস (তানজির হক, হাসিবুল ইসলাম, তাহমিদ আহমেদ) এবং চিটাগং পোর্ট সিটি ওয়ারিয়স (ইয়াসমিন হক, ত্রিশিতা চৌধুরী)।
উৎসব বিপিএল অফ ইউএসএ-২০১৯ এর এক্সিকিউটিভ কমিটি-২০১৯ এর কর্মকর্তা/সদস্যরা হলেন: সভাপতি- সুমন খান, সিনিয়র সহ সভাপতি- তানভীর চৌধুরী (বাবু), সহ-সভাপতি মাসুম রহমান, সাধারণ সম্পাদক তানভীর ভূইয়াঁন, কোষাধ্যক্ষ ধ্রীতিমান চৌধুরী (অমিত), পরিচালকবৃন্দ যথাক্রমে মনি খান, প্রনয় শুভ্র দাস, রাহী আহমেদ, মো: জসিম ফাহাদ, মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর আশরাফুল চৌধুরী মিহির। উপদেষ্টাবৃন্দ যথাক্রমে আল আমিন রাসেল, সাজিদ হাসান (প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার), মামুনুল মালিক (বাকানা সভাপতি), আতিয়ার রহমান (প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার) ও হাফিজুর রহমান সানি (প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার)।
এছাড়াও পুরো আয়োজনে স্পন্সর হিসেবে থাকবে এনওয়াই ইন্সুরেন্স, ফ্রাষ্ট ট্রাক মবিলিটি, ইমিগ্রান্ট এলডার হোম কেয়ার, এস এন্ড বি ব্রাদার্স, প্রিন্ট ফেয়ার, বোম্বে ট্রাভেলস এন্ড গ্রাফিক্স ইনক, আরমান সিপিএ, কারি ইন এ হারি, মোল্লা অটো বডি শপ, ট্রাভেল ওয়েষ্ট, শপ এন্ড হল, হেরিটেজ এয়ার এক্সপ্রেস, কারডিনাস ইসলাম এন্ড এসোসিয়েটস পিএলএলসি, ফুমা ইনোভেটিভ এবং আমেরিকানস হেলপিস আমেরিকানস।
উল্লেখ্য, গত বছরে অনুষ্ঠিত বিপিএল ২০১৮ এর খেলাগুলো টাইম টেলিভিশন সরাসরি সম্প্রসার করে। বিপিএল নাইটের তারিখ পরবর্তিতে জানানো হবে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।






একই ধরনের খবর

  • ফাইনাল ১ সেপ্টেম্বর ॥ মুখোমুখী যুব সংঘ (বি) ও সোনার বাংলা
  • যুব সংঘ (বি) অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন ব্রঙ্কস ইউনাইটেড রানার্স আপ : টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল ২৫ আগষ্ট
  • ব্রাদার্স ব্রঙ্কস ইউনাইটেড ও যুব (বি)’র পূর্ণ পয়েন্ট লাভ
  • যুব সংঘ সোনার বাংলা ও ব্রাদার্সের জয়লাভ ॥ তাজওয়ারের হ্যাট্রিক
  • নিউইয়র্কে বিকেএসপি’র তারকাদের মিলন মেলা
  • জ্যাকসন হাইটস ক্লাব সাসপেন্ড : ব্রঙ্কস ইউনাইটেড ও যুব সংঘে পূর্ণ পয়েন্ট লাভ
  • ব্রাদার্স ও যুব সংঘের (বি) পূর্ণ পয়েন্ট লাভ ॥ সন্দ্বীপ ও জ্যাকসন হাইটসের পয়েন্ট ভাগাভাগী
  • Shares