দৈনিক জনকন্ঠে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

হককথা ডেস্ক: বাংলাদেশের দৈনিক জনকন্ঠ পত্রিকায় সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা ও টাইম টেলিভিশনকে জড়িয়ে একটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদের তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন বাংলা পত্রিকা সম্পাদক ও টাইম টেলিভিশনের সিইও আবু তাহের।
এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, আমি দ্ব্যর্থহীনভাবে বলতে চাই যে, বাংলাদেশের কোন রাজনৈতিক দলের পৃষ্টপোষকতা বা সমর্থন বাংলা পত্রিকা বা টাইম টিভির মিশন বা ভিশন নয়। খবর বানানো নয়, পরিবেশনই আমাদের কাজ। বাংলাদেশের কোন রাজনৈতিক দল বা গোষ্টির সুবিধভোগিও নই আমরা। কারো পক্ষে বা বিপক্ষে ষড়যন্ত্র করা কোন সংবাদ মাধ্যমের কাজ হতে পারে না। এধরনের কোন কাজের সাথে কখনো আমার কোন সম্পৃক্ততা নেই।
জনকণ্ঠ পত্রিকার খবরে আমাকে জড়িয়ে যে খবরটি বেরিয়েছে তা ডাহা মিথা, অনভিপ্রেত ও মানহানিকর। আমার দীর্ঘ ৩৫ বছরের সাংবাদিকতা জীবনে কেউ কখনো কোন রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতা বা পক্ষপাত আবিস্কার করতে পারবে না। আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি কেউ এটা প্রমাণ করতে পারবে না।
বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা যুক্তরাষ্ট্রে আসার পর ঘটনার পেছনের ঘটনা জানার জন্য একটি পেশাদার সংবাদ মাধ্যম হিসেবে আমরা একাধিকবার যোগাযোগ করেছি তার সাথে।
বিচারপতি এস কে সিনহা বার বার বলেছেন একটি বই লেখার কাজে তিনি ব্যস্ত। এটি শেষ হওয়ার পরই তিনি সাক্ষাতকার দেবেন। বইটি শেষ হওয়ার পর তিনি বিবিসিকে প্রথম সাক্ষাতকার দিয়েছেন। তারপর তার বাসায় তিনি টাইম টেলিভিশনকে সাক্ষাতকার দিতে রাজী হন। এই সাক্ষাতকারের বাইরে সাবেক বিচারপতির সাথে আমাদের কোন যোগাযোগ বা তার কাজের সাথে আমাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই। কেউ কোন ধরনের ষড়যন্ত্রের সাথে সম্পৃক্ত হলে এর দায়ভার একান্তই তার। এক্ষেত্রে আমাকে জড়িয়ে মিথা খবর প্রকাশ একেবারেই অহেতুক, বিভ্রান্তির ও আমার দীর্ঘ পেশাগত ইমেজ ক্ষুন্নের একটি চক্রান্ত।
আমি এধরনের মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকার খবর প্রকাশের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ এবং সংশ্লিষ্ট পত্রিকাকে দু:খ প্রকাশের দাবী জানাচ্ছি।






একই ধরনের খবর

  • মমিন মজুমদারের মাতৃবিয়োগ
  • রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতায় সেল্ফ সেন্সরশিপ !
  • বাসস’র এমই শাহরিয়ার শহীদের ইন্তেকাল
  • CNN’s Jim Acosta Must Have White House Credentials Restored, Judge Rules
  • ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সিএনএনের মামলা
  • নিউইয়র্কের ৯টি সাপ্তাহিকের সম্পাদকদের নিয়মিত বৈঠক অনুষ্ঠিত
  • শুভানুধ্যায়ীদের ভালোবাসায় মুগ্ধ নয়া দিগন্ত পরিবার
  • পত্রিকার রাজধানী মজমপুর গ্রাম থেকে প্রকাশিত হয় অর্ধশত পত্রিকা
  • Shares