স্বদেশ প্রত্যাবর্তন সংগ্রাম পরিষদের সভায় বক্তারা

তারেক রহমানের জন্য অনুকুল পরিবেশ সৃষ্টির আহ্বান

তারেক রহমান স্বদেশ প্রত্যাবর্তন সংগ্রাম পরিষদের  সভায় বক্তব্য রাখছেন  এম এ সালাম

হককথা ডেস্ক: তারেক রহমান স্বদেশ প্রত্যাবর্তন সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত এক সভায় বক্তারা অবিলম্বে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে স্বদেশে ফিরে যাওয়ার উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টির দাবী জানিয়েছেন। বক্তারা বর্তমান সরকারকে স্বৈরাচারী আখ্যায়িত করে এজন্য দেশ ও প্রবাসে জাতিয়তাবাদী শক্তিকে ঐকব্যদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান। গত ৩ নভেম্বর রোববার জ্যাকসন হাইটসের ইত্যাদি রেস্টুরেন্ট মিলনায়তনে এই সভার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন তারেক রহমান স্বদেশ প্রত্যাবর্তন সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি পারভেজ সাজ্জাদ।
সভায় ঢাকা থেকে পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল নোমান টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এম এ সালাম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন খলকুর রহমান।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ডা. মুজিবুর রহমান মজুমদার, সাবেক সভাপতি আব্দুল লতিফ স¤্রাট, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু, সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি গিয়াস আহমেদ, সাবেক সহ সভাপতি আলহাজ্ব সুলাইমান ভুইয়া, সাবেক সহ সভাপতি আনোয়ার হোসেন সহ মোশাররফ হোসেন সবুজ, রেজাউল আজাদ ভুইয়া, আবু তাহের, জাকির হাওলাদার, বদরুল হক আজাদ, সুহেব আহমেদ, মশিউর রহমান, মনিরুল ইসলাম মনির, ফরিদ খন্দকার, হাসান আহমেদ, ফরিদ খন্দকার, শুয়েব আহমদ, মুক্তাদির হোসেন, লিয়াকত আলী, খুর্শেদ আলম, লায়েক আহমদ, আনোয়ার জাহিদ প্রমুখ।
বক্তব্য রাখছেন পারভেজ সাজ্জাদ

সভায় বক্তারা বলেন, এই সরকারের আমলে দেশের সাধারণ মানুষের জান মালের কোন নিরাপত্বা নেই। আবরার হত্যার মাধ্যমে সরকারী ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগ প্রমাণ করেছে তারাই সন্ত্রাসের হোতা। দেশে হাজার মানুষকে গুম করে রাখা হয়েছে। শিক্ষাঙ্গনে শিক্ষার পরিবেশ নেই। ঘুষ দুর্ণীতি স্বজনপ্রীতিতে ছেয়ে গেছে পুরো দেশ। যা প্রমাণ হচ্ছে অনেকেই বস্তা সমেত টাকা ফেলে দিচ্ছে নদীতে। এ পর্যন্ত দর্নীতিবাজ হিসেবে যাদের ধরা হয়েছে তারা সবাই সরকারী দলের লোক। ক্যাসিনো স¤্রাটের জন্ম দিয়েছে সরকার। প্রশ্ন উঠেছে সরকারী প্রশ্রয় ও মদদ ছাড়া এসব হতে পারে না।
বক্তারা বলেন, সিপাহী জনতার অভুত্থানের মাধ্যমে এই দিনে শহীদ জিয়াকে সিপাহী জনতা বন্দীদশা থেকে উদ্ধার করেছিল। আধিপত্যবাদ বিরোধী চেতনায় বাংলাদেশী জাতিয়বাদের মাধ্যমে বাংলাদেশীদের স্বতন্ত্র জাতিসত্বাকে সেদিন বিশ্বের বুকে তুলে ধরেছিলেন। বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা আজ প্রশ্নের মুখে। পার্শ্ববর্তী দেশের ইশারাতে পরিচালিত হচ্ছে দেশ।
এই অবস্থায় এই সরকারকে হটানোর কোন বিকল্প নেই।
সভায় বিভিন্ন বক্তা তারেক রহমান স্বদেশ প্রত্যাবর্তন সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি পারভেজ সাজ্জাদকে এই অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে এই প্রয়াসকে অব্যাহত রাখার দাবী জানান। একই সঙ্গে বক্তাদের অনেকেই পারভেজ সাজ্জাদকে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতিও আহ্বান জানান।(বাংলা পত্রিকা)



« (পূর্ববর্তী খবর)



একই ধরনের খবর

  • কমিউনিটি ক্ষমতায়নের নতুন সম্ভাবনায় তরুণ প্রজন্ম
  • ইউএস সার্ভিস একাডেমিতে শিক্ষার্থীদের ভর্তি সহায়তার উদ্যোগ
  • মওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী ১৭ নভেম্বর রোববার : নিউইয়র্কে আলোচনা ও দোয়া আয়োজন
  • সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু এমপি স্বস্ত্রীক নিউইয়র্কে
  • নিউইয়র্ক ষ্টেট আ. লীগের কোষাধ্যক্ষ এম এইচ মতিনের ইন্তেকাল
  • একজনের ১৫ বছরের জেল
  • ডা. ওয়াজেদ পুনরায় সভাপতি মনোয়ার নতুন সাধারণ সম্পাদক
  • Shares