ডাকা বাতিল করলেন প্রেসিডেন্ট ড্রাম্প

নিউইয়র্ক: ‘ডেফারড একশন ফর চাইল্ড হুড এ্যারাইভাল’ বা ডাকা বাতিল ঘোষনা করলেন ট্রাম্প প্রশাসন। আর এর মধ্য দিয়ে অনিশ্চিত হয়ে পড়লো প্রায় আট লাখ তরুনের ভবিষ্যত। নিউইয়র্ক থেকে কলারাডো, ওয়াশিংটন থেকে ক্যালিফোর্নিয়া-সবখানে বইছে ডাকা বাতিলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ। অবশ্য পুরো বিষয়টি এখন কংগ্রেসের ওপর নির্ভর করছে। এদিকে ডাকা বাতিলের ফলে আমেরিকান ড্রিমাররা সবাই অশ্রুসজল। কেউ ঘরের কোনে, কেউ ক্ষোভে-দু:খে রাজপথে। তাদের ঘোষনা একটাই-এই দেশ ছেড়ে কোথাও যাবেনা তারা।
প্রায় আট লাখ তরুন যারা শিশু বয়সে বাবামা’র সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র এসেছিলেন, কিন্তু তাদের বৈধতা দেয়ার বিল ‘ডেফারড একশন ফর চাইল্ড হুড এ্যারাইভাল’ বা ডাকা মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) বাতিল ঘোষনা করলেন এ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস।
ডাকা বাতিল করলেও অপরদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, এই তরুণদের প্রতি তারও ভালোবাসা আছে।
পাঁচ বছর আগে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার চালু করা এ প্রকল্পের আওতায় সুরক্ষা পেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রে অনিবন্ধিত প্রায় আট লাখ তরুণ অভিবাসী। এ তরুণদের বিতাড়নের হাত থেকে রেহাই দিয়ে সেদেশে বসবাস, পডাশোনা ও ভবিষ্যতে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছিলেন ওবামা। আর তারাই ‘ড্রিমার’ নামে পরিচিত।
প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে থেকেই ট্রাম্প এ প্রকল্পের বিরোধিতা করছিলেন। নির্বাচিত হওয়া মাত্রই এ প্রকল্প বাতিল করার পরিকল্পনাও জানিয়েছিলেন তিনি। তবু আশা ছিলো ‘ড্রিমারদের’ স্বপ্ন ভেঙে দেবেন না তিনি। তবে ট্রাম্প পুরো বিষয়টি এখন ছেড়ে দিয়েছেন কংগ্রেসের ওপর।
ইউএস হোমল্যান্ড সিকিউরিটি এ প্রকল্পের অধীনে নতুন করে আর কোনও আবেদন গ্রহণ করবে না বলে জানানো হয়েছে ঘোষণায়। (টাইম টেলিভিশন)



« (পূর্ববর্তী খবর)



একই ধরনের খবর

  • ক্যালিফোর্নিয়ায় ভয়াবহ দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫০
  • ক্যালিফোর্নিয়ায় দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১
  • যে কারণে মার্কিন মধ্যবর্তী নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ
  • ‘ইতিহাস গড়তে আসিনি, আমরা পরিবর্তনের জন্য এসেছি’
  • ‘আমিই ইউএস কংগ্রেসে প্রথম হিজাবধারী মুসলিম নারী’
  • যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন : ট্রাম্পের সামনে অনেক বাধা আছে অভিশংসনের ভয়ও
  • নিম্নকক্ষে ডেমোক্রেটদের বিজয়
  • বিজয়ী হয়ে আলোড়ন তুলেছেন যারা
  • Shares