বাংলাদেশ সোসাইটির সভায় সিদ্ধান্ত

ট্রাষ্টি বোর্ড থেকে আলী ইমামকে অব্যহতি : মিলনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশীদের ‘মাদার সংগঠন’ হিসেবে পরিচিত বাংলাদেশ সোসাইটি ইনক’র ট্রাষ্টি বোর্ড থেকে বোর্ডের অন্যতম সদস্য আলী ইমাম শিকদারকে অব্যহতি এবং অপর সদস্য কাজী আজহারুল হক মিলনে-কে কারণ দর্শানোর নোটিশ জারীর সিদ্ধান্ত হয়েছে। অসাংগঠনিক কর্মকান্ড এবং সোসাইটির কর্মকর্তা সহ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অশালীন মন্তব্য, আশালীন আচরণ ও বক্তব্য প্রদানের প্রেক্ষিতে সোসাইটির কার্যকরী কমিটির নিয়মিত মাসিক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানা গেছে।
সিটির এলমহার্স্টস্থ সোসাইটির নিজস্ব অফিসে গত ৪ নভেম্বর রোববার অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সোসাইটির সভাপতি কামাল আহমেদ এবং সভা পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন সিদ্দিকী। সভায় সোসাইটির কার্যকরী পরিষদের ১৯জন কর্মকর্তাদের মধ্যে দুজন কর্মকর্তা ছাড়া অন্য সবাই উপস্থিত ছিলেন বলে সভা সূত্রে জানা গেছে। খবর ইউএনএ’র।
সভা সূত্র জানায়, সভায় ট্রাষ্টি বোর্ডের দুই সদস্য ও একজন কর্মকর্তার সাম্প্রতিক বক্তব্য ও মন্তব্য সোসাইটি সহ সোসাইটির কর্মকর্তার মানহানির সামিল এবং জনসম্মুখে অনাকাংখিত ও অশালীন উল্লেখ করে সংখ্যাগরিষ্ট কর্মকর্তাদের সম্মতিতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এতে ট্রাষ্টি বোর্ড থেকে বোর্ডের অন্যতম সদস্য আলী ইমাম শিকদারকে অব্যহতি এবং অপর সদস্য কাজী আজহারুল হক মিলনে-কে কারণ দর্শানোর নোটিশ জারীর সিদ্ধান্ত হয়। মিলনকে আগামী ৭দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে হবে, অন্যথায় তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়াও সোসাইটির অপর কর্মকর্তা তথা সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুুর রহীম হাওলাদারের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ আমলে নিয়ে সভায় তার সাথে আলোচনা করে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়ার সিদ্ধান্ত হয় বলে সভা সূত্র জানায়।
সভার অপর এক সিদ্ধান্তে আগামী ১৭ ডিসেম্বর বাংলাদেশের মহান বিজয় দিবস উদযাপনেরও সিদ্ধান্ত হয়। উডসাইডের কুইন্স প্যালেসে বিজয় দিবস অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।
সূত্র মতে, সভায় কার্যকরী পরিষদের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক খায়ের, সহ-সাধারণ সম্পাদক এম কে জামান, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম ভূইয়া, প্রচার ও গণসংযোগ সম্পাদক রিজু মোহাম্মদ, সমাজকল্যাণ সম্পাদক নাদির এ আইয়ুব, সাহিত্য সম্পাদক নাসির উদ্দিন, ক্রীড়া ও আপ্যায়ন সম্পাদক মোহাম্মদ নওশেদ হোসেন, স্কুল ও শিক্ষা সম্পাদক আহসান হাবিব, কার্যকরী সদস্য ফারহানা চৌধুরী, মাইনুল উদ্দিন মাহবুব, আজাদ বাকির, সাদী মিন্টু, আবুল কাশেম ও সরোয়ার খান বাবু উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে সোসাইটির সিনিয়র সহ সভাপতি আব্দুর রহীম হাওলাদার ও সাংস্কৃতিক সম্পাদিকা মনিকা রায় সভায় অনুপস্থিত ছিলেন।
এদিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সোসাইটির সাবেক এক কর্মকর্তা রোববার (৪ নভেম্বর) রাতে ইউএনএ প্রতিনিধি-কে জানান, সোসাইটির গঠনতন্ত্র মোতাবেক (সেকশন ৩:১১) ট্রাষ্টি বোর্ডের কোন সদস্যকে বহিষ্কার করার ক্ষমতা কার্যকরী পরিষদের নেই।
অপর এক কর্মকর্তা বলেন, সত্যিকার অর্থে সোসাইটি গঠনতন্ত্র মোতাবেক চলছে না। এবং গঠনতন্ত্র মোতাবেক ট্রাষ্টিবোর্ডের সদস্য মনোনীত/নির্বাচিত করা হলে সোসাইটিতে কোন সঙ্কট বা সমস্যা দেখা দিতো না।






একই ধরনের খবর

  • নাইন-ইলেভেনের ১৮ বছর: কী ঘটেছিল সেদিন?
  • জালালাবাদ এসোসিয়েশনের নির্বাচন ২৭ অক্টোবর
  • ৯/১১ : কী ঘটেছিল সেদিন
  • নাইন ইলেভেন : সন্ত্রাসী হামলার আতঙ্ক এখনো কাটেনি
  • ভয়াল ৯/১১ বুধবার
  • ‘এ-এইচ ১৬ ড্রিম ফাউন্ডেশন’র স্কুল সাপ্লাই বিতরণ
  • বাংলাদেশ সোসাইটি ভবনে ৮৬ হাজার ডলারের লীন : বাড়ী হাত ছাড়া হওয়ার আশংকা
  • লাগোর্ডিয়া ম্যারিয়ট ফোবানা কনভেনশনে ঐক্যের আহবান : ২০২০ সালের সম্মেলন মন্ট্রিয়ল
  • Shares