টরন্টোতে বাসা থেকে দম্পতিসহ ৪ বাংলাদেশীর লাশ উদ্ধার

হককথা ডেস্ক: কানাডার টরন্টোর শহরতলির প্রায় ৩০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে অবস্থিত মারখামের একটি বাসা থেকে দম্পতিসহ চারজনের মৃতদেহ পুলিশ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় ইয়র্ক রিজিওনাল পুলিশ ২০ বছর বয়সী এক যুবককে আটক করে। আটক যুবক নিহত দম্পতির ছেলে। রোববার (২৮ জুলাই) রাতে এই নির্মম ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ জানায়। তবে পুলিশ এখনও নিহতদের নাম, পরিচয় প্রকাশ করেনি।

সিবিএনের এক রিপোর্ট থেকে জানা গেছে, নিহত সবাই বাংলাদেশী এবং টাঙ্গাইল জেলার অধিবাসী। তারা হলেন, মোহাম্মদ মনির ও মুক্তা জামান এবং তাদের মেয়ে, এবং কানাডায় বেড়াতে আসা মুক্তা জামানের মা অর্থাৎ মনিরের শাশুড়ি।
সিবিএন আরো জানায়, নিহত দম্পতির গ্রেফতার ছেলে সম্ভবত মানসিকভাবে বিকারগ্রস্থ ছিল, এমনকি সে মাদকাসক্তও ছিল। তাদের ধারণা, খাবারে কিছু মিশিয়ে অজ্ঞান করার পর ছুরিকাঘাতে তাদের হত্যা করে সে। এরপর সে গেম খেলতে থাকে। পরিবারের সদস্যদের খুন করার বিষয়টি এই ছেলেই মন্ট্রিয়লে থাকা তার এক বন্ধুকে ফোন করে জানায়।
কাসলমোর এভিনিউ এবং এবং মিংয়ে অ্যাভিনিউস্থ একটি বাড়িতে সংগঠিত এই হত্যাকান্ডকে গোয়েন্দা সংস্থা গণহত্যা বলে অভিহিত করে। পুলিশ প্রতিবেশিদের কাছে খোঁজ-খবর নিচ্ছে এবং তারা জানায়, এ ব্যাপারে আরো তদন্ত চলছে। এজন্য জনসাধারণের সাহায্য-সহযোগিতা প্রত্যাশা করেছেন।
পুলিশের কাছে প্রতিবেশি পাসকোয়াল ডি’সৌজা জানায়, এ বাড়িতে পরিবারটি ২০০২ সাল থেকে বসবাস করে আসছে। (দৈনিক ইত্তেফাক)






একই ধরনের খবর

  • সিআইপি’র স্বীকৃতি পেলেন নিহাল রহিম
  • সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দাবিতে ক্যাপিটেল হিলের সামনে বিক্ষোভ
  • বিদায়-২০১৯, স্বাগতম-২০২০ : কমিউনিটির আলোচিত ঘটনা
  • স্বপ্নের আমেরিকায় আসতে ১১টি দেশের বিপদসংকুল পথ পাড়ি
  • জামান সরকার ‘সরপ’ কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা নির্বাচিত
  • তিন বাংলাদেশী গ্রেফতার : মেরিল্যান্ডে ইতিহাসের বৃহত্তম তামাকজাতপণ্য কেলেঙ্কারী
  • প্রবাসী আয়ের শীর্ষে শিল্পপতি মাহতাবুর রহমান
  • ফিলাডেলফিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশী কলেজ ছাত্রীর মৃত্যু
  • Shares