টরন্টোতে বাবা-মাসহ পরিবারের ৪ সদস্যকে খুন করল বাংলাদেশী যুবক

হককথা ডেস্ক: কানাডার টরন্টোর মারখাম এলাকার একটি বাড়ি থেকে গত রোববার (২৮ জুলাই) রাতে একই পরিবারের চার বাংলাদেশীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় মিনহাজ জামান (২৩) নামে ওই পরিবারেরই এক সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। খবর গ্লোবাল নিউজের।
নিহতরা টাঙ্গাইল জেলার অধিবাসী। নিহত চারজন হলেন- মোহাম্মদ মনির, তার স্ত্রী মুক্তা জামান, তাদের মেয়ে ম্যালিসা এবং মনিরের শাশুড়ি। পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত করছে।
জানা যায়, ২০০২ সাল থেকে কানাডায় বসবাস করছিল ওই পরিবারটি। সম্প্রতি মনির ও মুক্তা জামানের ২৫তম বিবাহবার্ষিকী উপলক্ষে তাদের বাড়িতে আয়োজিত একটি ঘরোয়া অনুষ্ঠানে অনেক বাংলাদেশী অংশগ্রহণ করেন।
পুলিশের ধারণা এটি একটি হত্যাকান্ড। নিহত দম্পতির আটক হওয়া ছেলেটি মানসিকভাবে অসুস্থ। সে মাদকাসক্ত হয়ে এই হত্যাকান্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পরিবারের সদস্যদের খুনের বিষয়টি সেই প্রথম মন্ট্রিলে থাকা তার এক বন্ধুকে ফোন করে জানায়। তবে কীভাবে তাদের মৃত্যু হলো তা এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি দেশটির পুলিশ।
প্রতিবেশীদের উদ্ধৃত করে টরন্টোর গণমাধ্যমগুলো বলছে, স্বল্পভাষী, শান্তশিষ্ট মিনহাজ ইয়র্ক ইউনিভার্সিটি থেকে ঝরে পড়ার পর ধীরে ধীরে নিভৃতচারী হয়ে পড়েন। শুধু নিকটস্থ মল এবং ব্যায়ামাগারে সময় কাটাতেন তিনি। হত্যাকান্ডের একটি ছবির পোস্ট করে তাতে তিনি লিখেছেন, প্রথমে আম্মু, তারপর নানী, তারপর বোন ও সবশেষে আব্বুকে হত্যা করি। সবশেষে তিনি লেখেন ‘পুলিশ এসে গেছে, গুডবাই। (দৈনিক যুগান্তর)






একই ধরনের খবর

  • টরন্টোতে বাংলাদেশী একই পরিবারের চারজনের লাশ উদ্ধার
  • ‘সন্তান নাস্তিক’ এই লজ্জা থেকে বাবা মাকে মুক্তি দিতে হত্যা!
  • টরন্টোতে বাসা থেকে দম্পতিসহ ৪ বাংলাদেশীর লাশ উদ্ধার
  • যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় না পেয়ে কানাডায় রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা
  • টরন্টো স্টারে বিচারপতি সিনহার আশ্রয় প্রার্থনা উন্মোচিত
  • হোয়াইট হাউসের সামনে মেট্রো ওয়াশিংটন আ. লীগের প্রতিবাদ : স্মারকলিপি প্রদান
  • আমেরিকা প্রবাসী মজিদ আলী ইতিহাসের কিংবদন্তী
  • Shares