জ্যামাইকা-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটির বৈশাখী মেলা ২৮ এপ্রিল শনিবার

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): নিউইয়র্ক তথা উত্তর আমেরিকার সনামধন্য সামাজিক সংগঠন জ্যামাইকা-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটি ইনক’র বৈশাখী মেলা-১৪২৫ আগামী ২৮ এপ্রিল শনিবার জ্যামাইকার ‘ডিএমভি পার্কিং লটে’ (গত বছরের মেলা স্থল) হবে বলে সংগঠনের এক সভায় চুড়ান্ত হয়েছে। এবারের মেলার গ্র্যান্ড স্পন্সর হচ্ছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, নিউইয়র্ক ইন্স্যুরেন্স ব্রোকারেস ইনক’র প্রেসিডেন্ট লায়ন শাহ নেওয়াজ।
জ্যামাইকায় গত ৭ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠত জ্যামাইকা-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটি  (জেবিএফএস)-এর কার্যকরী পরিষদ ও উপদেষ্টা পরিষদের যৌথ সভায় এবারের বৈশাখী মেলার দিন-তারিখ নির্ধারণ সহ মেলা আয়োজনের অন্যান্য বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। জেবিএফএস-এর সভাপতি শেখ হায়দার আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠত সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কামরুজ্জামান বাবু। খবর ইউএনএ’র।
সভায় জেবিএফএস-এর প্রধান উপদেষ্টা এবিএম ওসমান গণি সহ অন্যান্য উপদেষ্টাদের মধ্যে নাসির আলী খান পল, ডা. ওয়াজেদ এ খান, ছদরুন নূর, মনজুর আহমেদ চৌধুরী, হুসনে আরা বেগম, শাহ নেওয়াজ, মনির হোসেন ও এবিএম সালাহউদ্দিন আহমেদ এবং কর্মকর্তাদের মধ্যে প্রতিষ্ঠাতা সভাপাতি মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার সহ মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, আলী কে খান কনক, হুমায়ুন কবির, সৈয়দ মোস্তফা আল আমীন রাসেল, আনোয়ার হোসেন, ডা. শাহনাজ আলম লিপি,  সৈয়দ লিটন আলী, মোহাম্মদ কবীর হোসেন, মোহাম্মদ কবির মুন্সী, শেখ আল আমিন, আব্দুল মোন্নাফ তালুকদার, আব্দুল মজিদ আকন্দ, রাব্বি সৈয়দ, নিলুফার খান স্বপ্না, জুয়েল মিয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাংলা বর্ষবরণ উপলক্ষে বৈশাখ মাসের প্রথম রোববার জেবিএফএস প্রতি বছর বর্ণাঢ্য আয়োজনে বৈশাখী মেলার আয়োজন করে থাকে। কিন্ত এবার মেলার স্থান নির্ধারণ সহ আবাহাওয়া জনিত কারণ সহ অন্যান প্রেক্ষাপটের কারণে বৈশাখ মাসের তৃতীয় সপ্তাহে বৈশাখী মেলার আয়োজন করতে হচ্ছে। তবে আগামী বছর থেকে যাতে বৈশাখ মাসের প্রথম সপ্তাহের প্রথম রোববার এই মেলা আয়োজনের জন্য সভায় গুরুত্বারোপ করা হয়। চলতি বছরের মেলার বাজেট ধরা হয়েছে ৪৫ হাজার ডলার।
সভায় জানানো হয় যে, প্রতি বছরের মতো এবছরের মেলায়ও একাধিক স্টল, দেশ ও প্রবাসের শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্মরণিকা প্রকাশ এবং বৈশাখী পুরষ্কার প্রদান করা হবে। এছাড়াও এবারের মেলায় একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ মরহুম ড. মনসুর খান ও সদস্য প্রয়াত ‘মান্নান সুপার মার্কেট ও গ্রোসারী’র প্রতিষ্ঠাতা সাঈদ রহমান মান্নান-কে বিশেষভাবে স্মরণ করা হবে।
সভায় বক্তারা বলেন, জ্যামাইকা-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডস সোসাইটি উত্তর আমেরিকার একটি ঐতিহ্যবাহী সামাজিক সংগঠন। তাই সবাই মিলে এই সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করতে হবে।  সভায় কোন কোন বক্তা সংগঠনের স্থায়ী অফিস প্রতিষ্ঠার উপরও গুরুত্বারোপ করেন।






একই ধরনের খবর

  • নিউইয়র্ক বাংলাদেশী আমেরিকান লায়ন্স ক্লাবের নতুন কমিটি অভিষিক্ত
  • নিউইয়র্ক সিটিতে বাড়ী ক্রয়ে ২০ হাজার ডলার সাহায্য গ্রহণের সুযোগ
  • জ্যামাইকায় বারী হোম কেয়ারের দ্বিতীয় শাখা উদ্বোধন
  • জাঁকজমকপূর্ণ সিলেট সদর সমিতির বনভোজন প্রবাসীদের মিলন মেলায় পরিনত
  • মুনাফা নয়, প্রবাসীদের সেবা দেয়াই স্ট্যান্ডার্ড এক্সপ্রেস’র লক্ষ্য ॥ দেশপ্রেম ছাড়া দূর্নীতি বন্ধ করা যাবে না
  • ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী
  • ক্যাবীর আতœহত্যা বাড়ছেই : বিলুপ্তির পথে ইয়েলো ক্যাব ইন্ড্রাষ্ট্রি!
  • নিউইয়র্ক মহানগর আ. লীগের বিবৃতি ‘ওদের দায় আওয়ামী লীগ নেবে কেন?’
  • Shares