এক স্লিপ

সালাহউদ্দিন আহমেদ: নিউইয়র্ক থেকে বাংলা ভাষায় বর্তমানে কতগুলো সাপ্তাহিক বা মাসিক বা ত্রৈমাসিক পত্রিকা প্রকাশিত হয় তার সঠিক সংখ্যা আমি বলতে পারবো না। আমার বিশ্বাস শুধু আমি কেন, প্রবাসের কারো পক্ষেই পত্রিকা প্রকাশের সংখ্যা বলা সম্ভব নয়। কেননা, হাতে গোনা কয়েকটি পত্রিকা ছাড়া অন্য পত্রিকাগুলো কবে অর্থাৎ কোন দিন প্রকাশিত হয় তার বলা কঠিন। কোন কোন পত্রিকা অনিয়মিতও প্রকাশিত হয়। তবে সব মিলিয়ে নিউইয়র্ক থেকে বাংলা ভাষার পত্রিকা প্রকাশের সংখ্যা প্রায় দুই ডজন হবে। এরই মধ্যে চলতি সপ্তাহে ‘সাপ্তাহিক আওয়াজ’ নামে আরো একটি প্রকাশিত হবে বলে শুনে আসছিলাম। আগামী সপ্তাহে নাকি আরো ২/১ একটি সাপ্তাহিক প্রকাশের কথা!
তো নতুন পত্রিকা কেমন হয়? দেখতে কেমন? মান কেমন দেখতে? মনের মধ্যে আগ্রহ ছিলো। আর তাই শনিবার (১৭ মার্চ) অফিসে আসার পথে জ্যামাইকার হিলসাইড এভিনিউস্থ একটি গ্রোসারী স্টোরের সামনেই এক বান্ডিল ‘সাপ্তাহিক আওয়াজ’ পড়ে থাকতে দেখে দুটো পত্রিকা হাতে নিলাম। একটি অফিসের জন্য, একটি নিজের জন্য। সাথে শনিবার প্রকাশিত সাপ্তাহিক বাঙালী ও সাপ্তাহিক পরিচয়-এর কপিও সংগ্রহ করলাম। আওয়াজ হাতে নিয়ে দেখলাম শুক্রবারের পত্রিকা শনিবার বাজারে এসেছে। যাই হোক, অফিসের উদ্দেশ্যে ১৬৯ স্ট্রীট সাবওয়ে থেকে লং আইল্যান্ড সিটিগামী এফ ট্রেনে উঠার আগে পত্রিকাগুলোর হেডিংগুলো দেখতে দেখতে আমার পরিচিত একজন কমিউনিটি নেতা (সঙ্গত কারণেই নাম প্রকাশ করছি না) একটু ক্ষোভের সাথে বললেন- ‘কমিউনিটিতে পাঠকের চেয়ে পত্রিকার সংখ্যাই মনে হচ্ছে বেশী হয়ে যাচ্ছে’। তার আকস্মিক এই কথা বা মন্তেব্যের জন্য প্রস্তুত ছিলাম না, তাই কোন মন্তব্য না করেই অফিসে আসার তাড়া থাকার কথা বলে বিদায় নিলাম। আর মনের মধ্যে আওড়াতে থাকলাম, আসলেই কি ‘নিউইয়র্কে পাঠকের চেয়ে পত্রিকা’র সংখ্যা বেশী হয়ে যাচ্ছে?
উল্লেখ্য, সপ্তাহের প্রতি শুক্রবার নিউইয়র্ক থেকে প্রকাশিত পত্রিকাগুলো হচ্ছে: সাপ্তাহিক আজকাল, সাপ্তাহিক প্রবাস, সাপ্তাহিক প্রথম আলো (উত্তর আমেরিকা সংস্করণ) ও সাপ্তাহিক আওয়াজ। ১৮ মার্চ’২০১৮ (সাপ্তাহিক বাংলা পত্রিকা)






Shares