নিউইয়র্কে উত্তরবঙ্গবাসীদের মতবিনিময় সভায় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী

উন্নয়ন-আগ্রগতি চাইলে সাহস করে এগিয়ে আসতে হবে : দূরে নয়, দেশের কাছে আসুন, দেশে বিনিয়োগ করুণ

নিউইয়র্ক (ইউএনএ): গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সকোরের বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী এমপি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গেছে। দেশে বিনিয়োগের অনেক সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। দেশবাসীর মতো প্রবাসীদেরও এই সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। তিনি বলেন, নিজের এবং দেশ-জাতির উন্নয়ন-আগ্রগতি চাইলে সাহস করে এগিয়ে আসতে হবে, ঘরে বসে শুধু দাবী-দাওয়া করলে চলবে না। আমাদের জায়গা আমাদেরই করে নিতে হবে। তিনি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী বাংলাদেশীদের উদ্দেশ্যে বলেন, দূরে নয়, দেশের কাছে আসুন, দেশে বিনিয়োগ করুণ। সরকার আপনাদের সকল সুযোগ করে দেয়ার পাশাপাশি সমস্যারও সমাধান করে দেবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাতিসংঘ সফর সঙ্গী বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সীর সম্মানে নিউইয়র্ক তথা যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী উত্তবঙ্গবাসী আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী উপরোক্ত কথা বলেন। গত শুক্রবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের ফ্রেশমেডোস্থ আলী বাবা রেষ্টুরেন্টে এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও মূলধারার রাজনীতিক এবং নর্থ বেঙ্গল ফাউন্ডেশন-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হাসানুজ্জামান হাসান। খবর ইউএনএ’র।
সভায় অনান্যের মধ্যে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নর্থ বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা নাসির আলী খান পল ও ডা. মাসুদুল হাসান, ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডা. আব্দুল লতিফ, বিশিষ্ট পানি বিশেষজ্ঞ ড. সুফিয়ান খন্দকার, ফার্মাসিস্ট আব্দুল আওয়াল সিদ্দিকী, ফাউন্ডেশনের সাবেক সিনিয়র সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল মতিন তালুকদার, রাজশাহী জেলা সমিতির উপদেষ্টা আজিবর রহমান পাতা, নাটোর জেলা সমিতির সভাপতি আলহাজ আব্দুল খালেক হিরা এবং গাইবান্ধা সমিতির মোহাম্মদ শাহজাহান সহ সুলতান আহমেদ, রায়মুল হুদা প্রধান, জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।
সভায় নিউইয়র্ক বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাপ্তাহিক বাংলাদেশ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদ এ খান, নর্থ বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ও মুক্তিযোদ্ধা মফিজ আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা ফরহাদ খন্দকার ও ডা. নার্গিস রহমান সহ অর্ধ শতাধিক উত্তরবঙ্গবাসী উপস্থিত ছিলেন। যৌথভাবে সভাটি পরিচালনা করেন ইঞ্জিনিয়ার এবিএম মিজানুল হাসান ও এম এ মজিদ আকন্দ। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে প্রবাসী উত্তরবঙ্গবাসীদের পক্ষ থেকে মন্ত্রী টিপু মুন্সীকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়।
সভায় বক্তারা তাদের বক্তব্যে উত্তরবঙ্গ থেকে টিপু মুন্সীকে মন্ত্রীসভায় স্থান দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে দেশব্যাপী ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হলেও উত্তরবঙ্গে তেমন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। উত্তরবঙ্গবাসী আজো গ্যাস পায়নি, গড়ে উঠেনি ব্যাপক ভিত্তিক কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা, হাসপাতালগুলোতে ডাক্তার থাকলেও নেই উন্নতমানের চিকিৎসা সরঞ্জাম। বক্তারা উত্তরবঙ্গে কর্মসংস্থানের পাশাপাশি অবিলম্বে গ্যাস সংযোগের দাবী জানিয়ে বলেন, আমরা যত তাড়াতাড়ি গ্যাস পাবো, উত্তরবঙ্গ তত তাড়াতাড়ী সমৃদ্ধ হবে। কেননা, গ্যাসের অভাবে অনেক শিল্প-কারখানা গড়া সম্ভব হচ্ছে না।
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিদিন ১২/১৪ ঘন্টা করে কাজ করেন। আমাদেরও কাজ করতে উৎসাহিত করেন। ফলে দেশে উন্নয়ন কর্মকান্ড বাড়ছে। তিনি বলেন, রংপুরে ১০০ শয্যার ক্যান্সার হাসপাতাল ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হছে। আগামী দেড়/দুই বছরের মধ্যে উত্তরবঙ্গে গ্যাস সংযোগ যাবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সরকার সাধ্যমতো উত্তরবঙ্গের দূর্নাম ঘুচানোর চেষ্টা করছেন। এখন আর কেউ উত্তরবঙ্গকে মঙ্গা পিড়িত এলাকা বলে না, এখন আর উত্তরবঙ্গে মানুষ না খেয়ে মরে না। তিনি বলেন, উত্তরবঙ্গের কৃষি ভিত্তিক কর্মকান্ডের আলোকে সেখানে ভারী প্রকল্প গড়ে তোলার পরিকল্পনা চলছে। তিনি দেশে বিনিয়োগকারী প্রবাসীদের সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেয়ার পাশাপাশি প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিয়ে গিয়ে সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দেন এবং বিনিয়োগের আহ্বান জানান।
টিপু মুন্সী তার বক্তব্যে প্রসঙ্গত বলেন, উত্তরবঙ্গে সাহসী মানুষ নেই বলেই আমরা এগুতে পারছি না। সবাইকে সাহস নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, ১৯৭৩ সালে ছাত্রলীগের কর্মী হিসেবে ঢাকার তৎকালীন জিন্নাহ কলেজের নাম পরিবর্তনের দাবী করে তিতুমীর কলেজ নামকরণ করা হয়। সেই সময় সাসহ দেখিয়েছিলাম বলেই ‘জিন্নাহ কলেজ’-এর নাম ‘তিতুমীর কলেজ’ করা হয়। আজ সেই কলেজের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৫২ হাজার। এজন্য আমরা গর্ব করতে পারি।
সভায় হাসানুজ্জামান হাসান বাণিজ্য মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আমরা প্রবাসীরা উত্তরবঙ্গে বিনিয়োগ করতে চাই। ব্যক্তিগতভাবে আমি বিনিয়োগ করেছি। তবে এজন্য পর্যাপ্ত সুযোগ-সুবিধা নেই। তিনি অবিলম্বে গ্যাস সংযোগের দাবী জানিয়ে বলেন, যতদিন উত্তরবঙ্গে গ্যাস সংযোগ দেয়া সম্ভব না হয়, ততদিন গ্যাসের মূল্যে বিদ্যুত সরবরাহের ব্যবস্থা করা হলে আপতত: অনেকেই বিনিয়োগের জন্য এগিয়ে আসবেন।






একই ধরনের খবর

  • অ্যাপলো ব্রোকারেজ’র প্রেসিডেন্ট শমসের আলী হাসপাতালে
  • ব্রঙ্কসে সড়ক দুর্ঘটনায় বাংলাদেশী আতাউর নিহত
  • আব্দুল মান্নান এমপির ইন্তেকাল
  • বাংলাদেশীদের অনুষ্ঠানে সিনেটর চাক শুমারকে ঘিরে যা হলো
  • হাইরাম মানসেরাতকে নির্বাচিত করার আহ্বান
  • বাংলাদেশ স্পোর্টস কাউন্সিলের নতুন কমিটি ঘোষণা
  • ভবিষ্যতে কংগ্রেসে নেতৃত্ব দেবে বাংলাদেশীরা : চাক শুমার
  • ফ্রেন্ডস সোসাইটি নতুন পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা : আগামী দিনে নতুন কিছু উপহার দেয়ার প্রতিশ্রæতি
  • Shares