আবার বিপিএল শুরু ॥ টাইম টেলিভিশনের সরাসরি সম্প্রচার

উদ্বোধনী দিনে উৎসব গ্রুপ ও রেন্ডি বি সিগ্যালের মধ্যে প্রীতি ম্যাচ

হককথা ডেস্ক: নিউইর্য়কে কুইন্সের জ্যামাইকায় ড. আর ড্রু মাঠে বেশ জাঁকজমক আয়োজনের মধ্যদিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো শুরু হলো বিপিএল অফ ইউএসএ-২০১৯ এর আসর। রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে এই আসরের উদ্বোধনী দিনে বিপিএল’র সহ-সভাপতি মাসুম রহমানের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিপিএল’র সভাপতি সুমন খান, উৎসব গ্রুপ-এর সিইও রায়হান জামান, টাইম টেলিভিশনের সিইও এবং বাংলা পত্রিকা’র সম্পাদক আবু তাহের, এনওয়াই ইন্সুরেন্সের সিইও শাহ নেওয়াজ, নিউইর্য়ক ষ্টেট অ্যাসেম্বলী ডিষ্ট্রিক্ট ৩৭-এর আগামী প্রাইমারী নির্বাচনে প্রার্থী মেরী জোবাইদা, নিউইর্য়ক সিটির কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট ২৪ থেকে আগামী নির্বাচনে কাউন্সিলম্যান প্রার্থী ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার, উৎসব গ্রুপ-এর চীফ মার্কেটিং অফিসার সৈয়দ আল-আমিন রাসেল, টাইম টেলিভিশনের অন্যতম পরিচালক সৈয়দ ইলিয়াস খসরু, অলিভ আহমেদ, প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার ইউসুফ বাবু, হাফিজুর রহমান সানি ও সাজিদ হাসান, বিপিএল সিনিয়র সহ-সভাপতি তানভীর চৌধুরী (বাবু) প্রমুখ।
বিপিএল আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিপিএল’রর সভাপতি সুমন খান সবাইকে কষ্ট করে আসার জন্য আগত অতিথি এবং উপস্থিত দর্শকদের ধন্যবাদ জানান। এছাড়াও তিনি ভালো একটি টুর্নামেন্ট উপহার দেওয়া এবং আগামী বছর উৎসব গ্রুপ এবং টাইম টেলিভিশনকে নিয়ে আরো বড় আকারে খেলা আয়োজন করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
রায়হান জামান তার বক্তব্যে বিপিএল কমিটি, টাইম টেলিভিশন এবং আগত অতিথিকে ধন্যবাদ জানান, বিপিএল কে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবার কথা বলেন, সেই সাথে আরো বলেন, বিপিএল নাইটে বড় ধরনের চমক আছে বলে তিনি জানান।
আবু তাহের বিপিএল আসর আয়োজনের জন্য সভাপতি সুমন খানকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, উৎসব গ্রুপ-এর সিইও রায়হান জামানকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান বিপিএলকে প্রমোট করার জন্য। তিনি বলেন আগামীতে বিপিএল কমিটি, উৎসব গ্রুপ ও টাইম টিভি এক সাথে কাজ করে বিপিএল-কে লাখ লাখ দর্শকদের কাছে পৌছানো সম্ভব হবে।
শাহ নেওয়াজ টাইম টেলিভিশ কর্তৃপক্ষকে বিপিএল আসরের খেলাগুলো সরাসরি সম্প্রসার করার জন্য ধন্যবাদ জানান।
সৈয়দ আল-আমিন রাসেল বিপিএল কমিটিকে অনুুরোধ জানান নিজেদের খেলার পাশাপাশি নতুন প্রজন্মকে যেন সম্পৃক্ত করা হয়, তাদের ভিতর যেন আগ্রহ তৈরী করা হয়, যাতে করে তারাও যেন মাঠে এসে খেলা দেখে।
মেরী জোবাইদা তার বক্তব্যে বাংলাদেশ থেকে এসে এখানে যে ক্রিকেট খেলা হচ্ছে, এজন্য সকল খেলোয়াড়কে ধন্যবাদ জানান। তিনি নতুন প্রজন্মের মাঝে ক্রিকেটকে ছড়িয়ে দেওয়ার আহবান জানান।
ফখরুল ইসলাম দেলোয়ার শত ব্যস্ততার মাঝেও সবাই যে ক্রিকেট খেলছে, এজন্য প্রশংসা করেন। আগামীতে এই ধরনের আয়োজনে সিটি ও ষ্টেট লেভেলে যে ধরনের সহযোগিতা প্রয়োজন, তা সকলকে নিয়ে করে দেওয়ার কথা ব্যক্ত করেন।
সৈয়দ ইলিয়াস খসরু সবাইকে ধন্যবাদ জানান এবং ভবিষ্যতে আরো সুন্দর আয়োজন হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
অলিভ আহমেদ তার বক্তব্যে কমিউনিকেশন এজেন্সি ম্যাডোনার পক্ষ থেকে সকলকে ধন্যবাদ এবং ভবিষ্যতে বিপিএল এর পাশে থেকে সহযোগিতা করবেন, সে কথাও জানান।
ইউসুফ বাবু কয়েকটি পরামর্শ দিয়ে বলেন, নিজেদের জন্য না খেলে, ক্রিকেটের জন্য ইর্য়ুথ প্রোগ্রাম চালু করা, কোচ প্রোগ্রাম চালু করা এবং আম্প্যায়ার প্রোগ্রাম চালু করা যাতে করে ক্রিকেট খেলা আরো প্রসার হবে।
তানভীর চৌধুরী (বাবু) তার বক্তব্যে সেলিব্যাটি ক্রিকেট ম্যাচ-এর ফরমেট টি-১৫ এর বিস্তারিত জানান এবং বিপিএলকে সহযোগিতা করার জন্য সংশ্লিস্ট সকলকে ধন্যবাদ দেন।
বক্তব্য পর্ব শেষে উৎসব গ্রুপ সিইও রায়হান জামান এবং টাইম টেলিভিশনের সিইও ও বাংলা পত্রিকার সম্পাদক আবু তাহের এক গুচ্ছ বেলুন উড়িয়ে বিপিএল-এর উদ্বোধনী ঘোষনা করেন। টাইম টেলিভিশন পুরো আয়োজনটি সরাসরি সম্প্রসার করে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিটি দলের স্বত্বাধিকারী এবং খেলোয়াড়রা ছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন সাপ্তাহিক পরিচয় সম্পাদক নাজমুল আহসান, সাপ্তাহিক জন্মভূমি সম্পাদক রতন তালুকদার, জাতীয় দলের ফুটবলার বখতিয়ার, জাতীয় দলের হকি খেলোয়ার জাহিদ বিশ্বাস, বাকানার সভাপতি মামুনুল মালিক, বিসিএল অফ ইউএসএ এর প্রেসিডেন্ট আরিফুল ভূইয়ান জিয়া, হেরিটেজ এয়ার এক্সপ্রেস এর সুলতান আহমেদ, ষ্টার কাবাবের শিবলী নোমানী, অভিনেতা সুলতান বোখারী, প্রনয় শুভ্র দাস, রাহী আহমেদ, অমিত, মাসুম, তানভীর ভূঁইয়ান, পলাশ, সোহাগ খান, শামীম ইমাম, মনি খান, মো: উল্লাহ, বিগ মো, মো: জাসেম সহ আরো অনেকে।
উদ্বোধনী দিনে উৎসব গ্রুপ একাদশ ও রেন্ডি বি সিগ্যাল একাদশের মধ্যে প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এই পর্বে ছিল প্রাক্তন খেলোয়ার-এর মিলন মেলা। শুরুতে উৎসব গ্রুপ একাদশ-এর অধিনায়ক সাজিদ হাসান টসে জিতে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেন। তারা ১৫ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১৬ রান করতে সক্ষম হন। তাদের পক্ষে জাহিদ ২৪ বলে সর্বোচ্চ ৩১ রান সংগ্রহ করেন। রেন্ডি বি সিগ্যাল-এর পক্ষে পলাশ নেন ৩ উইকেট। জবাবে রেন্ডি বি সিগ্যাল নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারতে থাকে। তাদের ইনিংস থামে ৮০ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে। তাদের পক্ষে জামান করেন সর্বোচ্চ ২১ রান করেন। তাদের বিপক্ষে উৎসব গ্রুপ-এর জাহিদ নেন ৩ উইকেট। অলরাউন্ডার পারফর্মিং এর জন্য উৎসব গ্রুপ এর জাহিদ ম্যাচ সেরার পুরস্কার পান।
জাতীয় দলের প্রাক্তন খেলোয়াড়দের নিয়ে এতো সুন্দর আয়োজন করার জন্য উৎসব গ্রুপ একাদশের অধিনায়ক সাজিদ হাসান এবং রেন্ডি বি সিগ্যাল একাদশের অধিনায়ক হাফিজুর রহমান সানি বিপিএল কমিটিকে ধন্যবাদ জানান, খেলাটি সরাসরি সম্প্রসারের জন্য টাইম টেলিভিশন কর্তৃপক্ষকেও ধন্যবাদ জানানো হয়। তারা বলেন, আমরা বিপিএল-এর আয়োজনের সাথে আছি, থাকবো এবং নতুন প্রজন্মের কাছে ক্রিকেটকে আগ্রহী করে তোলা, অনুশীলনের ব্যবস্থা করা, এগুলো নিয়ে ভবিষ্যতে কাজ করার পরিকল্পনার কথা জানান।
উৎসব গ্রুপ একাদশ: সাজিদ হাসান (অধিনায়ক), বখতিয়ার (উইকেট কিপার), জাহিদ বিশ্বাস, গাজী সালাউদ্দিন, হুমায়ুন, প্রিন্স, বাবু, হাবিব, বাবু রোহান)।
রেন্ডি বি সিগ্যাল একাদশ: হাফিজুর রহমান সানি (অধিনায়ক), জুয়েল (উইকেট কিপার), রোমেল, পলাশ, প্রিন্স, জিয়া, তুহিন, ফয়সাল, ডালিম, বাপ্পি, জামান, সামি। আম্প্যায়ার: অনিন্দ্য, অমিত, মাসুম। ধারাভাষ্যকার: খন্দকার ও মৃন্ময়।
উল্লেখ্য, এবারের বিপিএল-এর দলগুলো হচ্ছে: ঢাকা গ্লাডিয়েটরস, মুন্সিগঞ্জ উইজার্ড, বিক্রমপুর কিংস এলেভেন, বরিশাল রয়েলস, দিনাজপুর ডায়নামাইটস, ঢাকা ভাইপারস, খুলনা এ্যাভেনজার্স, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস, নোয়াখালী লিজেন্ড, নোয়াখালী নেমেসিস, সিলেট সুপার কিংস এবং চিটাগং পোর্ট সিটি ওয়ারিয়স। প্রতিটি দল ৪টি গ্রুপ এবং প্রতিটি টিম ডাবল রবীন লীগ ভিত্তিেেত গ্রুপ পর্যায়ে মোট ৪টি ম্যাচ খেলবে। প্রতিটি গ্রুপ থেকে থেকে ২টি টিম নক আউট পর্বে উন্নীত হবে। সর্বমোট খেলা হবে ৩১টি এবং খেলার জন্য সর্বমোট ৫টি মাঠ ব্যবহার করা হবে। মাঠগুলো হচ্ছে- আইডেল ওয়াইল্ড ক্রিকেট ফিল্ড, বেইজলি ১,৩,৪, এবং ড. চার্লেস আর ড্রু। অক্টোবরের ৫, ৬ ও ১২ তারিখে গ্রুপ পর্যায়ের খেলা, কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমি ফাইনাল এবং অক্টোবরের ১৩ তারিখে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে। টাইম টেলিভিশন ফাইনাল, সেমি ফাইনাল, কোয়াটার ফাইনাল এবং গ্রুপ পর্ব থেকে মোট ৫টি খেলা সরাসরি সম্প্রচার করবে।
আগামী ৫ অক্টোবর বিপিএল-এর প্রথম খেলা অনুষ্ঠিত হবে আইডেল ওয়াইল্ড ক্রিকেট ফিল্ডে। টাইম টেলিভিশন খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার করবে। (বাংলা পত্রিকা)






একই ধরনের খবর

  • সাকিব দুই বছরের জন্য নিষিদ্ধ : দায় স্বীকার
  • বিপিএল-২০১৯ : ঢাকা গ্লাডিয়েটর্স চ্যাম্পিয়ন : ঢাকা ভাইপার্স রানার্স আপ
  • বিপিএল ক্রিকেট আসরের উদ্বোধন ২৯ সেপ্টেম্বর
  • অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন যুব সংঘ
  • ফাইনাল ১ সেপ্টেম্বর ॥ মুখোমুখী যুব সংঘ (বি) ও সোনার বাংলা
  • যুব সংঘ (বি) অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন ব্রঙ্কস ইউনাইটেড রানার্স আপ : টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল ২৫ আগষ্ট
  • ব্রাদার্স ব্রঙ্কস ইউনাইটেড ও যুব (বি)’র পূর্ণ পয়েন্ট লাভ
  • Shares